কক্সবাজার প্রতিনিধি:

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় এবং সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যকে উদ্দেশ্য করে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের আওতাধীন কক্সবাজার পৌর ছাত্রলীগ নেতা হাসান তারেকের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে লিখা খোলা চিঠি।

এতে তিনি বর্তমান জেলা ছাত্রলীগের কার্যক্রমসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোকপাত করেন।যা পাঠকদের জন্য অনুরূপভাবে তুলে ধরা হলো-

এতে তিনি বলেন-

| “বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সম্মানিত

সভাপতি/সাধারণ সম্পাদক…!!

জয় ভাই ও লেখক দাদার প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করছি..!!

আমরা কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের
মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি বিলুপ্ত চাই….!!

কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি অনুমোদনের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব চাই…..!!

দীর্ঘ অনেক বছর ধরে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের কমিটি হওয়ার কথা থাকলেও এখনো পর্যন্ত তৃণমূল কর্মীদের স্বপ্নের বাস্তবায়ন হয় নি…😥

কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন হওয়ার তারিখ নির্ধারিত হলেও দূরভাগ্যবসত তা আর হলো না…😥

কারণ বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কমিটির
সমস্যা জনিত কারণে সম্মেলন স্থগিত হয়ে যায়…!!

যার কারণে কক্সবাজারের তৃণমূল ছাত্রলীগে আমাদের মত যারা ছাত্ররাজনীতি করি তারা প্রায় প্রতিনিয়ত হতাশার মাধ্যমে দিন দিন হতাশাজনক হয়ে কক্সবাজারের রাজপথ থেকে জিমিয়ে পড়ছি..!

রাজপথে অনেক কষ্ট,ত্যাগ আর ঘাম জড়ানো
পরিশ্রম করে যাওয়া এমন অনেক ছাত্রলীগের প্রায় নেতা কর্মীরা হতাশাগ্রস্ত হয়ে ধৈর্য হারার পথে…!

জানি না, কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের কমিটির জন্য আর কত অপেক্ষার প্রহর গুনতে গুনতে কত কর্মীদের
স্বপ্ন নষ্ট হবে। কারন সবাই স্বপ্ন দেখে রাজপথে তাদের দেওয়া শ্রমের মূল্য হয়তো একদিন পাবে সেই আশায়..!

কারণ কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগ থেকে শুরু
করে পৌর ছাত্রলীগ সহ আরো বিভিন্ন উপজেলা,
ওয়ার্ড ইউনিট ছাত্রলীগের রাজনীতিতে যারা নেতা হওয়ার জন্য প্রার্থী হয়েছিলো তারা প্রায় আজ হতাশাগ্রস্ত।

আর অন্ধকার ভবিষ্যৎ নিয়ে এখনো রাজপথে ঠিকে আছে শুধুমাত্র বঙ্গবন্ধুর নীতি-আদর্শকে অনুসরণ করে।

কক্সবাজার তৃণমূলের ছাত্রলীগের কর্মীরা এখনো পর্যন্ত
মিছিল মিটিং এবং বিভিন্ন প্রোগ্রাম থেকে শুরু করে –

আওয়ামীলীগ সহ বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের প্রোগ্রামে অংশ গ্রহণ করে,রাজপথে ছাত্ররাজনীতিকে ধরে রেখেছে, কক্সবাজারের তৃণমূলের ছাত্রলীগ কর্মীরা..!!

আর বিশেষ করে আমরা যারা তৃণমূলের মাঠ পর্যায়ে রাজনীতি করি,আমাদের অনেক কিছু নিয়ে কষ্ট হলেও কাউকে বলতে পারি না…😥!

রাজপথে মিছিল মিটিং শেষে রোদে পুড়ে মাথার ঘাম পায়ে ফেলে বিবর্ণ মুখে বাসায় ফেরার সময়

আমাদের সাথে বিভিন্ন স্থান থেকে মিছিলে আসা যে সমস্ত ছোট ভাই গুলো থাকতো, তাদের বিদায় দেওয়ার সময় এমনও দিন গিয়েছে তাদের একটা রুটি- কলাও খাওয়াতে আমাদের হিমশিম খেতে হয়…😥

আর অনেক সময় সেই সমস্ত ছোটভাই গুলার পাশে থাকতে না পারলেও পদে পদে এদের ভুল ধরতে আমরা সিদ্ধহস্ত। যারা কিনা শত কষ্ট বুকে চেপে…😥
নিজের কথা,পরিবারের কথা ভুলে গিয়ে যবুকভরা স্বপ্ন নিয়ে রাজপথ দাপিয়ে বেড়ায়
শুধু ছাত্রলীগের জন্য…😥

আমাদের মত যারা মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান আছে
তারাই বুঝতে পারবে কত ত্যাগ,কষ্টের দ্বারা আমরা রাজপথে প্রতিনিয়ত এখনো পরিশ্রম করে যাচ্ছি…!!

কারণ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আর্দশকে বুকে লালন করে ও দেশরত্ন শেখ হাসিনার বিশ্বস্ত ভ্যানগার্ড হিসেবে।

তার দেখানো পথে চলার অনুপ্রাণিত সংগঠন আমার আবেগ অনুভূতির উচ্ছ্বাসের প্রাণের সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগকে ভালোবেসে….!!

লিখার অনুভূতি গুলো শুধু তারাই অনুভব করবে
যারা কিনা আমাদের মত মিছিল সহকারে ছাত্রলীগের বিভিন্ন প্রোগ্রামে খেয়ে না খেয়ে অংশগ্রহণ করে…!!

তাই আমি বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সম্মানিত সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক এর কাছে কক্সবাজারের হাজারো ছাত্রলীগ কর্মীদের বুকের কষ্টের কথা গুলো
সবার হয়ে তুলে ধরার চেষ্টা করছি। আপনাদের প্রতি
অনুরোধ রইলো….!!

আমাদের কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের যারা অভিভাবকরা আছেন এবং সকল সিনিয়র নেতাদের
মতামত এবং আলোচনা ও পরামর্শ অনুযায়ী খুব দ্রুত অল্প সময়ের মধ্যে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে
কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি চাই…!!

আর আমরা এমন নেতৃত্ব চাই যারা কিনা
কক্সবাজারের ছাত্রলীগের রাজপথে তৃণমূলের কর্মীদের কাছে যাদের গ্রহণযোগ্যতা বেশি এবং রাজপথে যাদের
নীতি-নৈতিকতা ত্যাগ,শ্রম ও কর্মীবান্ধব ক্লিন ইমেজের
মেধাবী নিয়মিত ছাত্রদের হাতে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটির নেতৃত্ব সঠিক ও যোগ্য ব্যক্তিদের মূল্যায়নের মাধ্যমে সারা বাংলাদেশের মধ্যে
কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের কমিটি একটি শক্তিশালী
ইউনিট হিসেবে পরিণত করার জন্য অনুরোধ রইলো..!

কোন ব্যক্তিগত সম্পর্ক এবং আঞ্চলিকতার দোহাই দিয়ে যারা নব্য কোন ক্যান্ডিডেট সৃষ্টি হয়ে কেউ নেতা হবে, আমরা তৃণমূল ছাত্রলীগের কর্মীরা তা কখনো বিশ্বাস করিনা…!!

কারণ অনেক কষ্ট বুকে চেপে,অনেক আস্থা বিশ্বাস নিয়ে বঙ্গবন্ধুর কন্যা আপনাদের বঙ্গবন্ধুর ছাত্রলীগের
পূর্ণাঙ্গ দায়িত্ব দিয়েছেন।

আর আমরা সারা বাংলাদেশের ছাত্রলীগের কর্মীরাও অপনাদের প্রতি আস্থা রাখি কারণ

আপনারা দেশরত্ন শেখ হাসিনার আদেশ-নির্দেশ আস্থা বিশ্বাস কে মাথায় রেখে সারা বাংলাদেশে তৃণমূল থেকে
যারা ছাত্রলীগের জন্য সবচেয়ে বেশি পরিশ্রম ও ইতিবাক কাজের মধ্যমে ছাত্রলীগের সুনাম অর্জন বাজায় রেখেছে..!

আপনারা অবশ্যই তাদের মূল্যায়ন করবেন
সেই বিশ্বাস রাখি ইনশাআল্লাহ…!!

শুধু আমরা যারা তৃণমূলের ছাত্ররাজনীতিটা করি,
বিশেষ করে, তাদের সকলের মনের জমানো কষ্টটুকু
উপস্থাপনের মাধ্যমে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি মাত্র ।”

হাসান তারেক (হাসান)
ছাত্রলীগের সাধারণ একজন কর্মী।
বাংলাদেশে ছাত্রলীগ,
কক্সবাজার পৌর শাখা ।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন