অনলাইন ডেস্ক:

ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর বলেন, জোর করে মিছিল মিটিং করানো দখলদারিত্বের যে একটা চর্চা ক্যাম্পাসগুলোতে চলছে এই দখলদারিত্ব বন্ধ করতে হবে, রাজনীতি বন্ধ করতে হবে।

শুক্রবার বিকালে বেসরকারি টিভি চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের টকশোতে তিনি এ দাবি জানান।

বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে নানা অনিয়ম ও অরাজকতা দূর করতে প্রকৃত শিক্ষকদের প্রশাসনে জায়গা দেয়ার দাবি জানিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে রাজনৈতিক প্রভাবমুক্ত রাখতে হবে প্রশাসনিক দায়িত্বে যারা থাকবে তাদের লেজুড়ভিত্তিক রাজনীতি ছাড়তে হবে। বুয়েট থেকে দাবি উঠেছে, তারা ছাত্র-শিক্ষকের রাজনীতি নিষিদ্ধ চেয়েছে। ছাত্র রাজনীতির একটা গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকা ছিল, ছাত্ররা এদেশের স্বাধীনতা আন্দোলন, গণআন্দোলন, ভাষা আন্দোলনে সব ধরনের গণ আন্দোলনে ছাত্র শিক্ষকরা মিলেমিশে আন্দোলন করেছে। সেই গৌরবোজ্জ্বল রাজনীতি কোন পর্যায়ে গেলে আজ ছাত্ররা দেশের সর্বোচ্চ প্রতিষ্ঠান থেকে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবি তুলছে।

ভিপি নুর বলেন, বুয়েটে আমরা কী দেখেছি, একজন ছাত্রকে (ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীরা) ৬ ঘন্টা পিটিয়ে মেরেছে; কিন্তু ভিসির মুখ দিয়ে একটা কথাও বের হয়নি। প্রশাসন (ঘটনার পর) সেই খুনের হত্যার সিসিটিভি ফুটেজ দেখতে দেয়নি। এই নতজানু প্রশাসনের পরিবর্তন করতে হবে এবং সেখানে প্রকৃত শিক্ষকদের জায়গা দিতে হবে।

তিনি উদাহরণ দিয়ে বলেন, বিচারপতি আবু সাঈদ চৌধুরী লন্ডনে ছিলেন যখন বিশ্ববিদ্যালয় ২৫ মার্চ আক্রমণের শিকার হয়েছে ‘তখন তিনি (বিচারপতি আবু সাঈদ চৌধুরী) বলেছেন, আমার বিশ্ববিদ্যালয় আক্রান্ত হয়েছে, আমার ছাত্ররা আক্রান্ত হয়েছে, তিনি আর এক মুহূর্ত লন্ডনে থাকতে পারেননি। চলে এসেছিলেন।

সারা দেশের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে ডাকসু ভিপি বলেন, যাদের সমস্যা তাদেরকে বলতে হবে। বাচ্চা না কাঁদলে মায়েরা দুধ দেয় না। সুতরাং আজকে যারা নির্যাতিত হচ্ছেন তারা যদি ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রশাসনের মাধ্যমে যদি সিটে উঠে। আমরা কোন রাজনৈতিক দলের মিটিং মিছিল করে হলে উঠবো না। তারা যদি এ দৃঢ়তা দেখাতে পারে তবে একটা ইতিবাচক পরিবর্তন আসবে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন